65 / 100

প্রেম সর্বদা স্বাধীন। আসলে প্রেমকে ঠিক আভিধানিক সংজ্ঞার মধ্যে সীমিত করা যায়না। জীবনের চলার পথে বিভিন্ন বাঁকে সে ধরা দিতে পারে তার নিজস্ব আঙ্গিকে।

তবে প্রেমের স্বভাবসিদ্ধ নিয়ম তার সাবলীল ছন্দ। সহজ জিনিসকে সহজ করেই সে বলে, শোনে, শুনতে পছন্দ করে।ঠিক যেমন “সোয়েটার” ছবির এই বিশেষ গানটিঃ প্রেমে পড়া বারণ, কারণে অকারণ !

প্রেমে পড়া বারণ, কারণে অকারণ !

প্রধান চরিত্র টুকু সবার সামনে দারুণ স্মার্ট নয়, আত্মবিশ্বাসহীন, খানিক স্বপ্নহীনও। বিয়ের বাজারে বারবার বাতিল হতে থাকা, বাবার দীর্ঘশ্বাস, মায়ের টেনশন, বোনের অপেক্ষা বাড়াতে থাকা প্রতিদিন নিজের কাছে হেরে যাওয়া এক মেয়ে। তাঁর আদর্শবাদী বয়ফ্রেন্ড বিয়েশাদীতে বিশ্বাসী না, আর টুকুর গুণ নেই বলে বিয়ে হয়ে যাবে এ ভয়ও নেই।

কলকাতার সম্ভান্ত ঘরের ব্যাংকার পাত্রের বাড়ি থেকে টুকুর জন্যে সম্বন্ধ আসে। তবে ছেলের মায়ের শর্ত থাকে একটাই, উনার বানানো উলের সোয়েটারের মতন আরেকটা সোয়েটার বানিয়ে দেখাতে হবে একমাসের মধ্যে। ভাল পাত্র হাতছাড়া করা যাবেনা- চিন্তার ভিত্তিতে টুকুর বাবা টুকুকে দিয়ে আসেন দার্জিলিংয়ে টুকুর পিসির কাছে, যিনি সেখানে এসব শেখান ঘরোয়াভাবে। প্রথমে ব্যাপারটা মেনে না নিতে চাইলেও টুকুর কথায় তিনি রাজী হন।

ধীরে ধীরে টুকু বুঝতে পারে পিসি কেবল উল বুনন নয়, তাঁকে শেখাচ্ছেন জীবনের সঠিক অর্থটাও। টুকু উল বোনে, আনকোরা হাতে কাঁটা ধরে ধরে সোয়েটার বোনে। শুধু সোয়েটার নয় সম্পর্কও বোনে, প্রেম-বন্ধুত্ব বোনে, আত্মবিশ্বাসের উল দিয়ে নতুন জীবন বুনতে শেখে টুকু।

প্রেম মানে ভূমিকা নয়, বরং চলার পথে বিপরীত স্রোতকে উপেক্ষা করে এগিয়ে চলা আর সম্পর্কের ভিত্তিকে মজবুত করা। আর এই ঘাতপ্রতিঘাতের মধ্যে থেকে খুঁজে নেয়া জীবনের ছোট ছোট সুখ দুঃখের রঙিন মোড়কে মোড়া মুহূর্তগুলো। কেননা, জীবন তো মালার মতন, যার পুঁতি বলি বা ফুল – সেটি আমাদের সুক্ষ অনুভূতিঃ

নবাগত হিসেবে সাম্য চরিত্রে ফারহান ইমরোজ সবথেকে মুগ্ধ করেছেন। এছাড়াও খারাজ মুখার্জি, শ্রীলেখা, জুন মালিয়া; ‘প্রজাপতি বিস্কুট’, ‘গুপ্তধনের সন্ধানে’র পর তৃতীয় সিনেমায় ইশা সাহাও বেশ সহজ ও সাবলীল অভিনয় করেছেন। তবে বিশেষভাবে বলতে হবে দার্জিলিংয়ের অপূর্ব সৌন্দর্যের সাথে সিনেমার প্রতিটি গান যেভাবে মিশে গেলো! এ এক অদ্ভুত অনুভূতি। আমি খুব কম ভারতীয় বাংলা সিনেমার প্রতিটা গান এত অর্থবহ আর হৃদয়ছোঁয়া হিসেবে পেয়েছি। পরিচালক শিলাদিত্য মৌলিক এই ভাদ্রমাসেও আপনাদের ‘সোয়েটার’ নামিয়ে ফেলতে বাধ্য করবেন।