81 / 100

জাল্লিকাট্টু: একটি মহিষ কে নিয়ে যে আস্ত একটা সিনেমা তৈরি করা যায় তা সিনেমাটি না দেখলে বুঝা অসম্ভব। পরিচালক একটি ছোট, সহজ, সরল গল্পকে এমন বাস্তবিক রুপ দান করছেন তা এক কথায় অসাধারণ।

জাল্লিকাট্টু মুভি
জাল্লিকাট্টু মুভি

জাল্লিকাট্টু মুভির গল্পটি একটি কসায় ও তার মহিষ কে নিয়ে। একজন কসাইয়ের কাজ হচ্ছে প্রত্যেক দিন মাংশ কেটে তার যে রেগুলার কাস্টমার থাকে তাদের চাহিদা পুরন করে আরও একটু বেশি বিজনেস করা যেমন বিয়ে বাড়ি বিভিন্ন অনুষ্ঠান এ মাংশ বিক্রি করা কিন্তুু হঠাৎ তার হাত থেকে মহিষ টি ছুটে পালিয়ে যায় এবং ঐ গ্রামটাকে পুরু তসনস কর ফেলে মহিষ টি অনেকে ফসল, আবাদি জমি, বাড়িঘর নষ্ট ফেলে। কসাই ও পুরো গ্রামবাসী মিলে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে মহিষ টিকে ধরার জন্য কিন্তুু প্রতি বারই তারা ব্যর্থ হতে থাকে ,বাধ্য হয়ে তারা মহিষটিকে ধরার জন্য প্রশাসনের নিকট হস্তক্ষেপ কমনা করা কিন্ত তারাও ব্যার্থ হলে কসাইটি সিধান্ত নেয় মহিষটিকে গুলি করে মেরে ফেলার কিন্তুু তাকে মারতে গিয়ে উল্টো নিজেরাই লড়ায়ে নেমে পড়ে এভাবে চলতে থাকে নিরীহ প্রাণী বনাম আধুনিক মানুষের লড়ায়।

জাল্লিকাট্টু মুভি অফিসিয়াল ট্রেলার

জাল্লিকাট্টু মুভির বিজিএম, লোকেশন, অভিনয় সামান্য একটি ছোট গল্পকে পর্দায় অপরুপ সুন্দর ভাবে দেখানো হয়েছে । আরও দেখানো হয়েছে আধুনিক যুগে এসেও মানুষ কতটা নিষ্ঠুর একটি নিরিহ প্রানির সাথে লড়ায়ে নেমে পড়ছে। আসলেই মানুষ কি তাদের সভাব সুলভ আচরণ করে প্রানিদের সাথে তারা কি তাদের বাসস্থান, খাদ্য, স্বাধীন ভাবে চলা ফেরায় বাধা সৃষ্টি না করত তাহেল তাদের অাচরন ভিন্ন হত। আধুনিক মানুষের আচরণ কি দিন দিন পশুর থেকেও খারাপ হয়ে উঠছে এরকম একটা বার্তা পরিচালক দর্শক কে দিতে চেয়েছেন মুভিটিতে।

জাল্লিকাট্টু মুভিটি ২০১৯ সালে মুভিটি টরেন্ট ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিম ফ্যাস্টভ্যাল ও ২৪তম বুসান ইন্টারন্যাশনাল ফ্যাস্টভ্যালে প্রদর্শিত হয় এবং অনেক সুনাম অর্জন করে তাছাড়া বেস্ট ডিরেক্টর ক্যাটাগরিতে ৫০তম ইন্ডিয়ান ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিম ফ্যাস্টিভ্যালে।

আরও পড়ুন: মুথুন মালায়ালাম ভাষার একটি ব্যতিক্রমী ডার্ক থ্রিলারের গল্প।

লেখক: রাজিব কুমার দাস, চলচ্চিত্র সমালোচক